Md Sahabuddin Sayef - (Chattogram)
প্রকাশ ২৪/০২/২০২২ ০৮:২০এ এম

টপসয়েল অপসারণের দায়ে ইউপি সদস্যকে অর্থদণ্ড

টপসয়েল অপসারণের দায়ে ইউপি সদস্যকে অর্থদণ্ড
ad image
চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে অভিযান চালিয়ে জমির উপরিভাগ মাটি কেটে অপসারণ করার অপরাধে ভেকু গাড়ি জব্দ ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে উপজেলা প্রশাসন।

মঙ্গলবার (২২ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ২টার দিকে উপজেলার গড়দুয়ারা ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের ইসলামিয়া ফয়জিয়া মাদ্রাসা এলাকায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিট্রেট মোঃ শাহিদুল আলমের নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসময় মাটি কাটার কাজে ব্যবহৃত একটি ভেকু গাড়ি জব্দ করে ব্যাটারি খুলে নেওয়া হয়।

উপজেলার বিভিন্নস্থানে আইনকে তোয়াক্কা না করে প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় দিবালোক বা রাতের আঁধারে এভাবে জমির উপরিভাগ মাটি কাটার কারণে হুমকির মুখে পড়ছে কৃষিজমি গুলো।

স্থানীয় সূ‌ত্রে জানাযায়, গড়দুয়ারা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ও সাবেক প্যানেল চেয়ারম্যান ফোরকানের প্রভাব খাটিয়ে তার নিজস্ব ১টি ভেকু মেশিন ব্যবহার করে ফয়জিয়া মাদ্রাসা সংলগ্ন আলী আহম্মদ মাষ্টারের বাড়ী এলাকায় জমি নষ্ট করে পুকুর খন‌নের জন্য মাটি কাটছে। প্রশাসনের অগোচরে ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে এভাবে জমির উর্বর মাটি কেটে জমির শ্রেণী পরিবর্তন করে মাছ চাষের জন্য পুকুর খনন করছে। যদিও ওই মেম্বার অস্বীকার করে বলেন, ভেকুটি আমার, গত ৫ বছর আগে ভেকুটি ক্রয় করে নোয়াখালী জেলায় ভাড়া দিয়েছি। একজন ব্যক্তি তার প্রয়োজনে নিজের জমি থেকে মাটি কেটে নিচ্ছে আমি শুধু ভাড়া দিয়েছি।

দীর্ঘ ৬বছর ইউপি সদস্যের দায়িত্ব পালন করে আসলেও কৃষি জমি থেকে মাটি কাটা অপরাধ সে বিষয়টি তিনি নাকি এখনো জানেননা। এটা শুধু গড়দুয়ারা নয়, উপজেলার ধলই, ফরহাদাবাদ, মির্জাপুর ইউনিয়নের দিবানিশি পাহাড় ও কৃষি জমির মাটি কাটার মহোৎসব চলছে। যদিও নজরে পড়ছেনা জনপ্রতিনিধিদের।

এবিষয়ে ইউএনও শাহিদুল আলম বলেন, জমি থেকে টপসয়েল কেটে শ্রেণী পরিবর্তন করছে।জমিতে শ্রেনী পরিবর্তনের কোন সুযোগ নেই। কিছু অসাধু ব্যা‌ক্তি ভেকু চালিয়ে জমি থেকে মাটি কাটছিল। খবর পেয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ব্যবহৃত একটি ভেকু মে‌শিন জব্দ এবং একজন‌কে আটক করি। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ৫০হাজার টাকা অর্থদন্ড প্রদান করা হয়েছে। পরে এমন অপরাধ আর করবেনা মর্মে মুসলেকা নিয়ে আটককৃত ব্যক্তিকে ছেড়ে দেওয়া হয়। পরিবেশ রক্ষার্থে এ অভিযান অব্যাহত থাক‌বে বলেও তিনি জানান।

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ