নাজমুল হোসেন , সংবাদদাতা ( বগুড়া ) - (Bogura)
প্রকাশ ২২/০২/২০২২ ১২:২১পি এম

ফেন্ডস্ অ্যাসোসিয়েশন বগুড়া'র উদ্যোগে পিঠা উৎসব

ফেন্ডস্ অ্যাসোসিয়েশন বগুড়া'র উদ্যোগে পিঠা উৎসব
ad image
চিরায়ত বাংলার ঐতিহ্য পিঠা নিয়ে বগুড়া ফেন্ড অ্যাসোসিয়েশনের শীতের পিঠা উৎসব অনুষ্ঠিত হলো। এই উৎসবে অংশ নেয় সংগঠনের অর্ধশতাধিক সদস্যরা। করোনাভাইরাসের কারণে সংক্ষিপ্ত আয়োজনে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সোমবার বিকালে সরকারি আজিজুল হক কলেজে এ আয়োজন করে আয়োজকরা।আনন্দ ভ্রমন, গ্রুপ স্টাডি, রক্তদান, মানব কল্যান ট্রাস্ট সহ বিভিন্ন সামাজিক কর্মকান্ডের মাধ্যমে পরিচিতি লাভ করেছে এই সংগঠন।

সংগঠনের সভাপতি আল-আমিন পিঠা উৎসবের উদ্বোধন করে জানান, ' আমাদের প্রাণের বন্ধন এই গ্রুপ। সকালের সহযোগিতায় অনন্য পর্যায়ে পৌছাবো আমরা। আমরা সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে নিজ নিজ জায়গা থেকে চেষ্টা করে যাবো। 'সদস্য আবু রায়হান বলেন, ' ১৬-১৭ পড়াশোনার পর প্রতিষ্ঠিত হবার লক্ষ্যে পড়াশোনা শুরুর মাধ্যম যদি গ্রুপ ভিত্তিক পড়াশোনা হয়। তবে তার কিছুই বিকল্প নাই। সেখানে আস্থা তৈরি করেছে এই সংগঠন। 'পড়াশোনার প্রতি ঝোঁক তৈরির জন্য কাজ করে থাকে ও সমন্বিত পড়াশোনার মাধ্যমে ভালো কিছু পাচ্ছেন বলে জানান মাস্টার্স শেষ করা জামিউল।

তিনি আরো বলেন, 'এখানে এসে পেয়েছি অনেক। কোচিং থেকে তুলনামূলক ভাবে অনেক ভালো। পরীক্ষার প্রশ্ন কাঠামোর বেশ প্রগতিশীল। ' ২০১৫ সাল থেকে এই সংগঠনের সাথে যুক্ত আমেনা বলেন, ' সিলেবাস অনুযায়ী পরীক্ষা নেয়া হয়। বেশ সহায়ক এই গ্রুপ। আমি অনেক কিছু পেয়েছি ও পাচ্ছি এই গ্রুপ থেকে। 'পানি উন্নয়ন বোর্ডে কর্মরত বেনজির আহমেদ বলেন, ' নিয়মিত পড়াশোনার বিকল্প নাই। আমিও এই সংগঠনের সদস্য। সমন্বয়ে পড়াশোনার মাধ্যমে আজ সমাজে প্রতিষ্ঠিত। 'সাধারণ সম্পাদক হাসিবুল বলেন, ' পিঠা উৎসবের মাধ্যমে এক মিলন মেলার জন্যই আমরা করে থাকি।শুধু পিঠা উৎসব না। বিভিন্ন সামাজিক কার্যক্রম আমরা করে থাকি। '

গ্রুপের প্রতিষ্টাতা ওহিদুজ্জামান সোহাগ জানান,' সদস্যদের সমমনার বিষয়টি নিয়ে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি ।এগিয়ে যেতে হলে অবশ্যই সকলের সহযোগী কামনা করি। করোনার সময়েও আমরা থেমে থাকি নি। ফেসবুকের মাধ্যমে সকালের সাথে যোগাযোগ সহ পড়াশোনার বিষয় চলমান রেখেছি। 'তিনি আরো বলেন, ' এই গ্রুপ একটি দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। আমরা পা রেখেছি ১ যুগে। এটিও সবার আন্তরিক মনোভাবের জন্য। '

২০০৯ সালের ২০ অক্টোবর যাত্রা শুরু করে এ সংগঠন। চাকুরী প্রত্যাশিদের নির্ভরযোগ্য সেচ্ছাসেবী সংগঠনও এটি। বর্তমানে শতাধিক সদস্য আছে এই গ্রুপে। আজিজুল হক কলেজে উন্মুক্ত স্থানে তাদের কার্যক্রম পরিচালিত হয়। অধ্যয়নরত বা চাকুরী প্রত্যাশীরা যুক্ত হতে পারে বলে জানান আরেক সদস্য। পরে বিভিন্ন প্রকার পিঠা সদস্যদের মাধ্যে বিতরণ করা হয়। পুলি পিঠা, ঝাল পিঠা, দুধ পিঠাসহ নানা রকমের পিঠা থাকে আয়োজনে। এর আগে সদস্যদের সমন্বয়ে ক্রিকেট ও নারী সদস্যদের বালিশ খেলা হয়। সে সময় প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ করা হয়। সংগঠনের সদস্যরা নৃত্য, সঙ্গিত ও কবিতা আবৃত্তি পরিবেশন করেন।

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ