Md. Shajahan kobir - (Mymensingh)
প্রকাশ ২৫/০১/২০২২ ০১:১৫পি এম

Mymensingh: তথ্য না দেওয়ায় প্রকল্প কর্মকর্তা সুহেল রানা'র বিরুদ্ধে তথ্য কমিশনের সমন জারী

Mymensingh: তথ্য না দেওয়ায়  প্রকল্প কর্মকর্তা সুহেল রানা'র বিরুদ্ধে তথ্য কমিশনের সমন জারী
ad image
ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) সোহেল রানা পাপ্পু সমন জারী করেছে তথ্য কমিশন। আগামী ৩০ জানুয়ারী রবিবার ভার্চুয়াল শুনানীতে হাজির থাকার জন্য এ সমন জারী করা হয়।

জানা যায়, গত ২৯-০৯-২০২০ তারিখে গৌরীপুর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা কার্যালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জনাব সোহেল রানা পাপ্পু বরাবর তথ্য অধিকার আইন, ০৯ অনুযায়ী তথ্য প্রাপ্তির জন্য আবেদন করেন সাংবাদিক খাইরুল ইসলাম আল আমিন। ইতি মধ্যে ২০ কর্ম দিবসসের অধিক সময় অতিবাহিত হওয়ার পর চাহিত তথ্য বা অপারগতা সংক্রান্ত্র পত্র না পাওয়ায় তিনি গত ০১-১১-২০ তারিখে গৌরীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাসান মারুফ বরাবরে অপিল করেন। কিন্তু সেখান থেকেও তিনি কোন সারা পাননি।পরে তিনি গত ০৮-০২-২১ তারিখে তথ্য কমিশন বরাবরে একটি অভিযোগ দাখিল করেন।

গৌরীপুর পিআইও, ইউএনও বিষয়টি নজরে না নিলেও বিষয়টি নজরে নেয় তথ্য কমিশন। তারা জেলা ত্রান ও পুর্নবাসন কর্মকর্তা বরাবরে আপীল করার নির্দেশ প্রদান করে সাংবাদিক খাইরুল ইসলাম আল আমিনকে একটি চিঠি পাঠায়।

পরে তিনি গত ২১/০৯/২০২১ তারিখে ময়মনসিংহ ত্রান ও পুর্নবাসন কর্মকর্তা বরাবরে আপীল করেন। কিন্তু তাতেও কোন ফলপ্রসু হয়নি। তাই তিনি অপারগ হয়ে পুনরায় গত ০৩-১১-২১ তারিখে তথ্য কমিশন বরাবরে আরেকটি অভিযোগ দাখিল করেন। এরই ভিত্তিতে ২৫ জানুয়ারী মঙ্গলবার তথ্য কমিশনের এ সমন চিঠি হাতে পান তিনি।

এ বিষয়ে সাংবাদিক খাইরুল ইসলাম আল আমিন জানান, তথ্য অধিকার আইন, ০৯ অনুযায়ী তথ্য প্রাপ্তির জন্য আবেদন করি। কিন্তু আমাকে কোন প্রকার তথ্য বা অপারগতা সংক্রান্ত্র পত্র না দেয়ায় আমি আপিল করি। সেখানেও কোন সারা না পেয়ে আমি তথ্য কমিশন বরাবরে অভিযোগ দাখিল করতে বাধ্য হই। সাংবাদিক হিসেবে নয় আমি বাংলাদেশের একজন নাগরিক হিসেবে তথ্য প্রাপ্তি আমার অধিকার। তাই আমি আমার অধিকার আদায় করতে তথ্য কমিশনের সাহায্য প্রার্থী হয়েছি।

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ