Md Ubaydullah - (Mymensingh)
প্রকাশ ২৩/০১/২০২২ ০৩:৫২পি এম

ঈশ্বরগঞ্জে বাঁশির শব্দে অতিষ্ঠ হাসপাতালের রোগীরা

ঈশ্বরগঞ্জে বাঁশির শব্দে অতিষ্ঠ হাসপাতালের রোগীরা
ad image
সপ্তম ধাপে ইউপি নির্বাচনে ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার ১১টি ইউপিতে ৭ফেব্রুয়ারি ভোটগ্রহণ অনুষ্টিত হবে। ২৩ জানুয়ারি প্রতীক নিতে এসেই স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষা ও আচরণবিধি লঙ্ঘন করে বাদ্য বাঁশি বাজিয়ে বিশাল মিছিল এবং মোটরসাইকেল মহড়া করছেন প্রার্থী-সমর্থকেরা।

এতে একদিকে যেমন ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়কে তৈরি হয়েছে যানজট, অন্যদিকে হাসপাতালের রোগিসহ সাধারণ পথচারীদেরকে বাদ্য বাঁশির শব্দে পোহাতে হয়েছে অবর্ণনীয় দুর্ভোগ।

সরেজমিনে দেখা যায়, প্রতীক নিতে আসা অধিকাংশ প্রার্থী-সমর্থকের মুখে নেই মাস্ক। কয়েকজনের মুখে মাস্ক থাকলেও সেগুলো ঝুলে আছে থুতনিচে। এ ছাড়াও চেয়ারম্যান, সংরক্ষিত মহিলা ও সাধারণ সদস্য প্রার্থীদের কর্মী-সমর্থকদের উপচেপড়া ভিড়ে নাকাল হয়ে পড়ে ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়কসহ পৌর এলাকার বিভিন্ন অলিগলি।

এ সময় আরও দেখা যায়, উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণের সামনে ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে বসেছে অস্থায়ী অসংখ্য বাঁশির দোকান। যেখান থেকে হাজার হাজার কর্মী-সমর্থকেরা ওইসব বাঁশি কিনে নেন। পরে ওই বাঁশির শব্দ দূষণে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েন সাধারণ পথচারী, হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীরা এবং বেসরকারি বিভিন্ন ব্যাংকসহ পৌর এলাকার বিভিন্ন বাসা-বাড়ির বাসিন্দারা।

এ বিষয়ে পথচারী আনোয়ার নামের এক বলেন, প্রার্থী-সমর্থকদের মিছিল ও মোটরসাইকেল মহড়ার উপচেপড়া ভিড়ে পুরো মহাসড়ক জুড়ে তীব্র যানজট তৈরি হয় । যেকারণে বিভিন্ন যানবাহনসহ পথচারীদের চলাচলে দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে'।

ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রোগী নিয়ে আসা এক অভিভাবক বিরক্ত হয়ে বলেন, হাসপাতালের ভিতরে মিছিল ও বাঁশির শব্দ দূষণে প্রতিটা রোগীর মধ্যেই অস্থিরতা বেড়ে গেছে। হাসপাতালের মতো একটা জায়গাতে এইগুলো বন্ধ করতে উপজেলা প্রশাসনের আরও তৎপর হওয়া উচিৎ ছিল।

মুক্তাদির আহমেদ অর্নব নামে এক ব্যাংক কর্মকর্তা জানান, সকাল থেকেই মিছিল ও বাঁশির শব্দ দূষণের কারণে কাজের ব্যাঘাত ঘটছে।

এ বিষয়ে ঈশ্বরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ( ওসি) মো. আব্দুল কাদের মিয়া বলেন, পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে এবং কোনপ্রকার বিশৃঙ্খলা যাতে না হয়, এ জন্য সকাল থেকেই মাঠে তৎপর ছিল পুলিশ। এ ছাড়াও শৃঙ্খলা বজায় রাখতে কর্মী-সমর্থকদের কাছ অসংখ্য বাঁশি জব্দ করা হয়েছে জানান তিনি।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মাহবুবুল হক বলেন, সকাল থেকেই অফিসে রয়েছি। বাহিরের পরিস্থিতি সম্পর্কে তেমন অবগত নই। প্রতীক বরাদ্দের আগে মিছিল করার কোন নিয়ম নেই। এ বিষয়ে প্রার্থীদের আগেই আচরণবিধি কপি দিয়ে দিয়েছি। তবে, বেলা ২টার পর থেকে মিছিল করা যাবে বলে জানান ওই কর্মকর্তা।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোসা. হাফিজা জেসমিন বলেন, প্রতীক বরাদ্দের আগে নির্বাচনী মহড়া, বাঁশি বাজিয়ে মিছিল, আচরণবিধি লঙ্ঘন। সেইসাথে বর্তমান করোনা পরিস্থিতির নীতিমালা পরিপন্থী। যা মোটেই কাম্য নয়। তবে নির্বাচনী আমেজের কারণে এ রকম হয়ে থাকতে পারে বলে তিনি মনে করেন। তবে সকালের পরিস্থিতির তুলনায় বর্তমান পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক বলে জানান তিনি।

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ