MD Nomsher Alam - (Sherpur)
প্রকাশ ২২/০১/২০২২ ১২:১০পি এম

Elephant attack: আবারো শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে হাতির আক্রমণ

Elephant attack: আবারো শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে হাতির আক্রমণ
ad image
শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার কাংশা ইউনিয়নের নাওকুঁচি ও নকশী কোচপাড়া এলাকায় হাতির আক্রমণে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ঘরবাড়ি, মন্দির ও গাছপালা। গতকাল শুক্রবার সন্ধার পর ১৫ টি হাতির একটি দল এই তান্ডব চালায়।

এলাকাবাসী প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সন্ধার পর পরই ১৫ টি হাতির একটি দল ন‌ওকুঁচি গ্রামের কাশেম মাষ্টারের বাড়ীতে ঢোকে ভাংচুর চালায়। এসময় হাতি ঘরের বেড়া ভেঙ্গে শুর ঢুকিয়ে ঘরের ভেতর গোলায় রাখা সমস্ত ধান খেয়ে সাবাড় করে ফেলে। স্থানীয়দের প্রতিরোধের মুখে ফিরে যাবার সময় কোচপাড়ার উত্তরে শ্বশান মন্দিরে ভাঙচুর চালায় এবং একটি টংঘর, ফুটবল মাঠের গোলপোস্ট, ছাপড়া ঘর ও বেশকিছু গাছপালা ভেংগে ফেলে।

ঝিনাইগাতী উপজেলা ট্রাইবাল ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের সভাপতি নীলমাধব হাজং বলেন, প্রতিনিয়ত হাতির আক্রমণে এলাকাবাসী নারী শিশু সহ সকলকে আতঙ্কের মধ্যে বসবাস করতে হচ্ছে। হাতির আক্রমণে হতাহত হচ্ছে মানুষ এবং ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে ক্ষেতের ফসল ও বাড়ীঘর। এখন আবার হাতি এসে বাড়িতে ঢোকে তান্ডব চালাচ্ছে, খেয়ে ফেলছে ঘরের ধানচাল। হাতির সাথে প্রতিনিয়ত লড়াই করে তারা এখন ক্লান্ত। তিনি প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করে এর একটা স্থায়ী সমাধানের পথ বের করতে আবেদন জানান।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে রাংটিয়া ফরেষ্ট রেঞ্চ কর্মকর্তা মোঃ শরিফুল ইসলাম বলেন উর্ধতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তার ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এবিষয়ে জানতে চাইলে ঝিনাইগাতী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফারুক আল মাসুদ বলেন, "ঘটনাটি ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাবাসী বা ইউপি চেয়ারম্যান-মেম্বারদের কেউ আমাকে অবহিত করেন নাই। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার আবেদন করলে সরেজমিনে পরিদর্শন করে ক্ষয়-ক্ষতির সত্যতা যাচাই করে বনবিভাগের মাধ্যমে নিয়মানুযায়ী সাহায্য দেয়া হবে।"

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ