নুরুজ্জামান 'লিটন' - (Naogaon)
প্রকাশ ২২/০১/২০২২ ১০:০৪এ এম

নওগাঁয় হলুদের ক্ষেতে যুবকের লাশ,ভ্যান ছিনতাই করেই হত্যার অভিযোগ

নওগাঁয় হলুদের ক্ষেতে যুবকের লাশ,ভ্যান ছিনতাই করেই হত্যার অভিযোগ
ad image
নওগাঁ জেলার মহাদেবপুরে হলুদের ক্ষেত থেকে অজ্ঞাত এক যুবকের অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।
গতকাল ২১ জানুয়ারি,শুক্রবার রাত ৯টার দিকে মহাদেবপুর উপজেলার মহিষবাথান মোড়ের আত্রাই নদীর পশ্চিম তীরের একটি হলুদের ক্ষেত থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে থানায় নেয় পুলিশ।

এলাকাবাসী ধারণা ও খোঁজখবর নিয়ে যতদূর জানা গেছে ওই যুবকের নাম মহসিন আলী (২২)।সে মহাদেবপুর উপজেলার রাইগাঁ ইউনিয়নের আতুড়া গ্রামের আব্দুল মজিদের ছেলে।

স্থানীয় এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, গতকাল শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে স্থানীয়রা উপজেলার মহিষবাথান মোড়ের আত্রাই নদীর পশ্চিম তীরে একটি হলুদের ক্ষেতে মরদেহটি দেখতে পায়। পরে তারা থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি উদ্ধার ও পরিচয় শনাক্তের চেষ্টা করে।

ঘটনা সূত্রে জানা যায়, গত ১৪ জানুয়ারি মহাদেবপুর থানায় রাইগাঁ ইউনিয়নের আতুড়া গ্রামের মহসীন আলী নামে এক যুবক নিখোঁজের বিষয়ে তার বোন মর্জিনা বেগম থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। যেখানে উল্লেখ করা হয়েছে- মহসীন আলী একজন ব্যাটারিচালিত চার্জার ভ্যানচালক।
সে ১৩ জানুয়ারি দুপুর দেড়টার দিকে গাড়ি নিয়ে বাড়ি থেকে বেরিয়ে আর ফিরে আসেনি। বিভিন্ন স্থানে ও আত্মীয় স্বজনদের বাড়িতে খোঁজ নিয়ে তাকে না পাওয়ায় থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয়। নিখোঁজের শরীরের বর্ণনা ছিল পরনে প্যান্ট ও গায়ে কালো রংয়ের জ্যাকেট। গায়ের রং শ্যামলা ও উচ্চতা ৫ ফুট ৩ ইঞ্চি।

নিখোঁজ মহসীন আলীর ভগ্নিপতি মইনুল ইসলাম বলেন, ১৩ জানুয়ারি দুপুর ১২টার দিকে তার শ্যালকের ফোনে একটি কল আসে। তাকে চার্জার ভ্যানটি নিয়ে যেতে বলা হয়। তার ভ্যানটি চার্জে থাকায় অপর প্রান্তের লোককে অন্য কারও ভ্যান নিতে বলেন মহসিন। পরে দুপুর দেড়টার দিকে ভ্যান নিয়ে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান তিনি। সেদিন রাত সাড়ে ৮টার দিকে শ্যালকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে পত্নীতলা থানার নজিপুর বাজারে আছেন বলে জানান। পরবর্তীতে তার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। নদীর তীরের ক্ষেতে যে লাশটি পাওয়া গেছে শরীর গঠন ও পোশাক দেখে তা তার শ্যালকের বলে মনে হচ্ছে। চার্জার ছিনতাইয়ের ঘটনায় এমন হতে পারে বলে ধারণা করছেন তিনি।

মহাদেবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) গোলাম আজম মরদেহ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, পরিচয় শনাক্ত করার জন্য রাজশাহী থেকে পুলিশের ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন টিম এসেছে। তবে ধারণা করা হচ্ছে, নিখোঁজ যে যুবকের বিষয়ে থানায় ডায়েরি করা হয়েছে এটি তার লাশ হতে পারে।

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ