MAHBUBUR RAHMAN OVI
প্রকাশ ২১/০১/২০২২ ০১:৪২পি এম

বরগুনায় শিক্ষার্থী ও অভিবাবকদের পরিচ্ছন্নতা শিক্ষা এবং হাতধোয়ার কৌশল অনুশীলন বাস্তবায়ন

বরগুনায় শিক্ষার্থী ও অভিবাবকদের পরিচ্ছন্নতা শিক্ষা এবং হাতধোয়ার কৌশল অনুশীলন বাস্তবায়ন
ad image
বার্গহপ ও সিমাভী নেদারল্যান্ডস এর সহযোগিতায় র্ডপ ওয়াশএসডিজি প্রোগ্রাম আওতায় করোনাকালীন বরগুনা সদর উপজেলার ৭টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে হাইজিন এডুকেশন এন্ড হ্যান্ডওয়াশিং প্রাকটিস প্রোগ্রাম বাস্তবায়ন করেছে। সেপ্টম্বর ২০২১ থেকে জানুয়ারী ২০২২ পর্যন্ত উপজেলার ৭টি মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ১ হাজার ৭৭০জন শিক্ষার্থী (ছাত্রী-১১১৪ ছাত্র-৬৭১) এবং৭৮৫ জন) অভিভাবক, শিক্ষক, বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য, ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য, নাগরিক কমিটির সদস্য, সুশীল সমাজ প্রতিনিধিসহ (নারী-৪৪৩ পুরুষ-৩৪২) অভিবাবক কর্মসুচীতে অংশ গ্রহণ করেন।

বিদ্যালয় সমুহ হচ্ছে আয়লা মাধ্যমিক বিদ্যালয়, পুরাকাটা আর্দশ বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ছোট লবনগোলা হাজার বিঘা মাধ্যমিক বিদ্যালয়, লেুময়া খাজুরা পিকে মাধ্যমিক বিদ্যালয়, আমতলী একে আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়, লাকুরতলা মনসাতলী এবি আর মাধ্যমিক বিদ্যালয়, জিএনএস আদর্শ বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়। র্ডপ এর জেলা সমন্বয়কারী এ এন এম আশরাফ উদ্দিন জানান, কর্মসুচী পালন উপজেলায় উপলক্ষে ২৫০০ পোস্টার ও লিফলেট বিতরণ, বিদ্যালয়, বাজার ও কমিউনিটিতে ২১টি দেয়াল লিখন, ২ মাস টিভ্স্ক্রিলে করোনা, হাইজিন ও হাতধোয়ার বার্তা সম্প্রচার এবং কমিউনিটি লোকবেতারে টকশোর আয়োজন করা হয়েছে। বিদ্যালয় গুলির ৭ম শ্রেনি থেকে ১০ম শ্রেনী পর্যন্ত সকল শিক্ষার্থীদের হাতধোয়ার অনুশীলন প্রশিক্ষণের সাথে সাবান, মাস্ক, স্যানিটাইজার, গুড়ো দুধ, খাবার স্যালাইন, স্যানেটারী ন্যাপকিন/প্যাড ( মেয়েশিক্ষার্থী ও নারীদেরজন্য), স্বাস্থ্যকর খাবার ও বিদ্যালয় সমুহে হাতধোয়ার সামগ্রী সরবরাহ করা হয়েছে।হাইজিন শিক্ষা ও হাতধোয়া অনুশীলন কর্মসূচী বাস্তবায়ন করায় লেমুয়া খাজুরা পিকে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী লামিয়া তানহা র্ডপকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, এ ধরণের শিক্ষা ও অনুশীলন আমাদের জন্য খুবই প্রয়োজন ছিল।

আয়লা পাতাকাটা ইউনিয়নের ওয়াশএসডিজি নাগরিক কমিটির সদস্য মাহাবুবুল আলম পুরাকাটা বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের হাতধোয়ার কৌশল প্রদর্শনে অংশ নিয়ে বলেন এ জাতীয় প্রোগ্রাম গুলি সরকারের জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল বিভাগ, ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্রগুলির করা উচিৎ। তিনি আরো বলেন স্কুলে হাত ধোয়ার কৌশল প্রদর্শন, লিপলেট বিতরন, হাতধোয়ার উপর পোষ্ঠার লাগানো, দেয়াল লিখন, টিভি স্কলে প্রচার ও টক শোতে আলোচনায় প্রায় ১০ হাজার মানুষ সচেতন হয়েছে।

আয়লা পাতাকাটা ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য নুরুন নাহার ময়না আয়লা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের হাতধোয়ার অনুশীলনে অংশ নিয়ে বলেন র্ডপ এর বাস্তবায়নে এই কার্যক্রমটি শুধু স্কুল পর্যায়েইনা এর প্রভাব গ্রামাঞ্চলেও পড়বে। কারন এখানে শুধু শিক্ষর্থীই নয় প্রায় সকল শ্রেনীর মানুষ আছে। আমরা যারা জনপ্রতিনিধি আছি তারাও চেষ্টা করবো এই বিষয় গুলি নিয়ে গ্রামাঞ্চলসহ সকল ফোরামে আলোচনা করতে। আমতলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বলেন ,বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী ও অভিবাবকদের হাতধোয়ার কৌশল প্রদর্শন, স্বাস্থ্য সম্মত টয়লেট ব্যবহারের গুরুত্ব, মেয়েদের মাসিক কালীন সময়ে স্যানিটারী ন্যাপকিন প্যাড ব্যবহার করার শিক্ষা সকল শিক্ষার্থী এবং তাদের পরিবার ও কমিউনিটিতে ছড়িয়ে পড়বে। কারন শুধ ুছাত্র/ছাত্রী বা শিক্ষকই নয় এখানে জনপ্রতিনিধি, অভিভাবক, বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটি, সুশীল সমাজ প্রতিনিধি ও যুব-ফোরামের প্রতিনিধিসহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।তিনি আরো বলেন এই অনুশীলনই হচ্ছে টেকসই উন্নয়ন। প্রোগ্রমটি মূল্যায়নে ওয়াশএসডিজি প্রোগ্রামের জেলা সমন্বয়কারী এম আশরাফ উদ্দিন বলেন, আমাদের প্রকল্পের সীমবদ্ধতার মধ্যে থেকে ছোট পরিসরে করলেও এই প্রোগ্রাম সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে করা প্রয়োজন। আমাদের ভবিষ্যত প্রজ¤েœকে স্বাস্থ্যবান জাতি হিসাবে গড়ে তুলতে হলে স্বাস্থ্য শিক্ষার অভ্যাসের কোন বিকল্প নাই।

বরগুনা সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার জামাল উদ্দিন বলেন, এই প্রোগ্রামটি এত বেশি কার্যকরী একটি প্রোগ্রাম যাহা আমাদের ভবিষ্যত প্রজ¤œকে স্বাস্থ্যসম্মত জীবন যাপনে উৎসাহিত করবে। এই প্রোগ্রামটি শুধু ৭টি বিদ্যালয়েই নয় সারা দেশের সকল মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বিদ্যালয়ের নিজ উদ্যোগে করা উচিৎ।

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ