নুরুজ্জামান 'লিটন' - (Naogaon)
প্রকাশ ২০/০১/২০২২ ০৬:৩৯এ এম

বউয়ের টাকায় চালাতো অন্য বউ,অবশেষে বদলগাছীতে প্রতারক গ্রেফতার

বউয়ের টাকায় চালাতো অন্য বউ,অবশেষে বদলগাছীতে প্রতারক গ্রেফতার
ad image
এক বউয়ের টাকায় চালাতো অন্য বউ,তারপর আবার বিয়ে.. আবার বিয়ে,অবশেষে বিয়ে পাগল এক প্রতারককে নওগাঁ জেলার বদলগাছী উপজেলার চাংলা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে সেই প্রতারককে।

কখনো ডিবি পুলিশ কখনো র‍্যাব আবার কখনো রেলওয়ে কর্মচারী পরিচয় দিয়ে বদলগাছীতেই তৃতীয় বিয়ে করে গ্রেপ্তার হলেন বিয়ে পাগল সেই প্রতারক বর রাজশাহী দুর্গাপুর থানার সুখান দিঘি গ্রামের মৃত ইসমাইলের ছেলে সাব্বির হোসেন সাকিব(৩৪)।

থানা ও ভুক্তভোগী পরিবার সুত্রে জানা যায়, সাব্বিরের মোবাইল ফোনে পরিচয় হয় বদলগাছীর চাংলা গ্রামের মামুন হোসেন পিন্টুর মেয়ে তাসমিমের সঙ্গে। সাব্বির ডিএসবি পুলিশ পরিচয়ে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে মিমের সঙ্গে। এক পর্যায় ২০২০ সালের মার্চ মাসে মৌখিক ভাবে তাসমিমকে বিয়ে করে বদলগাছী ভাড়া বাসায় সংসার পাতেন সাব্বির।

সাব্বির সব সময় আসল পরিচয় গোপন করে। তার নিজ বাড়ীতে কখনো মিমকে নিয়ে যায়নি। তাসমিম বারবার যেতে চাইলে সে চড়াও হয়,অত্যাচার করে। সাব্বিরের ব্যক্তিগত ব্যাগে কাউকে হাত দিতে দেয় না। এক দিন তাসমিম কৌশলে সাব্বিরের একটি মেমোরি কার্ড উদ্ধার করে ছবি দেখতে পায় তার আরো বউ সন্তান রয়েছে। বিষয়টি তাসমিম তার বাবা মাকে জানায়।

এ নিয়ে তাদের মধ্যে বিবাদ শুরু হলে গত ১৭ জানুয়ারী রাতে সাব্বির পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টাকালে তাকে বাসায় আটকে রেখে বদলগাছী থানায় তাসমিমের মা বাদী হয়ে থানায় অভিযোগ দিলে ঐ দিন রাতেই এসআই কামরুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে সাব্বিরকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।
থানায় জিজ্ঞাসাবাদে সাব্বির স্বীকার করেন সে রেলওয়ে কর্মচারী পরিচয়ে প্রথম বিয়ে করেন নাটোর । সেখানে ২টি সন্তান রয়েছে। র‌্যাব সদস্য পরিচয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করে বগুড়ার দুপচাঁচিয়া থানায়। ডিএসবি পরিচয়ে তৃতীয় বিয়ে করে বদলগাছীতে। এখানে ও দেড় মাসের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে।

তাসমিম ও তার মা জানায় সে এতো বড় প্রতারণা করবে তারা বুঝতে পারে নি। তাদের কাছ থেকে ধার বাবদ ১লাখ ২৫ হাজার টাকা নিয়েছে।
তাসমিম আরো জানায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর জানলাম সে প্রথম বউয়ের কাছ থেকে টাকা নিয়ে দ্বিতীয় বউয়ের খরচ দেয় এবং দ্বিতীয় বউয়ের কাছ থেকে টাকা নিয়ে আমাকে চালায় এবং আমার পরিবারের কাছ থেকে টাকা নিয়ে দ্বিতীয় বউ চালায় এটাই তার চাকুরী। আমি বিশ্বাস করতে পারছিনা এভাবে প্রতারণা করবে। আমার কোলে দেড় মাসের কন্যা সন্তান। আমি এবার এইচএসসি পরীক্ষা দিয়েছি। আমি এখন দাঁড়াবো কোথায় কোন পথ দেখছি না।

বদলগাছী থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আতিকুল ইসলাম জানান, সাব্বির প্রতারণা করে ৩টি বিয়ে করে। তার কোন কর্ম নেই। সে এক বউয়ের টাকা দিয়ে অন্য বউকে চালায়। তাকে গ্রেপ্তার করে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।
বদলগাছীতে সে বিয়ে রেজিষ্ট্রিই করেনি। একে তো প্রতারণা আবার মৌখিক বিয়ে এটা অপরাধ।

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ