SATYAJIT DAS - (Habiganj)
প্রকাশ ১৯/০১/২০২২ ০৮:১৯এ এম

Complaint: এমপি মিলাদ গাজী’র উপর চেয়ারম্যান সৈয়দ খলিলুর রহমানের ক্ষোভ

Complaint: এমপি মিলাদ গাজী’র উপর চেয়ারম্যান সৈয়দ খলিলুর রহমানের ক্ষোভ
ad image
হবিগঞ্জ জেলার বাহুবল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সৈয়দ খলিলুর রহমান ১৮ জানুয়ারি রোজ মঙ্গলবার বিকাল ০৩ঃ০০ টার দিকে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন।উক্ত সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত বিভিন্ন প্রিন্ট মিডিয়া, অনলাইন নিউজ পোর্টাল,জাতীয় পত্রিকা সহ স্থানীয় সাংবাদিকদের বলেন,’ আমি কোন দল বা রাজনৈতিক দলের সাথে সম্পৃক্ত নই।

বাহুবলবাসী আমাকে ভোট দিয়ে চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত করেছে উপজেলার উন্নয়ন কাজ করার জন্য ও তাদের সেবা করার জন্য,তাদের সুখে-দুখে পাশে থাকার জন্য। বাহুবল উপজেলার আমি অনেক উন্নয়ন মূলক কাজ করেছি,কিন্তু উন্নয়ন কর্মকাণ্ড সফলতার সহিত শেষ হবার পর,সেখানে নামফলক লাগানো হয় এমপি মিলাদ গাজী’র এবং নানা সময়ে এমপির পিএসও আমার প্রকৌশলীকে ভয়ভীতি দেখায়। বাহুবলে দৃশ্যমান কোন উন্নয়ন হয়নি। অথচ এমপি মহোদয়ের কিছু লোক আমার উন্নয়ন কার্যক্রমে অযথা বিশৃঙ্খলা তৈরি করছে ‘।

মঙ্গলবার (১৮ জানুয়ারি) বিকাল ৩ টায় বাহুবল উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ে আয়োজিত জরুরি সংবাদ সম্মেলনে সৈয়দ খলিলুর রহমান লিখিত বক্তব্যে বলেন,’ বাহুবল উপজেলার কটিয়াদি বাজারে ফিসসেড নির্মাণের জন্য প্রক্রিয়াধীন প্রকল্প এলাকায় উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ মনিরুল ইসলাম ও তার কার্য সহকারী উপজেলা চেয়ারম্যানের সাথে যাওয়ায় বাহুবল-নবীগঞ্জ আসনের সাংসদ শাহ নেওয়াজ গাজী মিলাদ এর পিএস সোহাইল আহমেদ তাদেরকে মোবাইল ফোনে হুমকি দেন এবং এমপির পিএস উপজেলা প্রকৌশলীকে উক্ত প্রকল্প বাদ দিতে বলেন। এর প্রতিবাদে জরুরি সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন সৈয়দ খলিলুর রহমান ‘।

বাহুবল উপজেলা চেয়ারম্যান সৈয়দ খলিলুর রহমান সংবাদ সম্মেলনে আরও বলেন,’ উপজেলা পরিষদের মাধ্যমে বাহুবল উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ২৭টি রাস্তা নির্মাণ ও মেরামতের জন্য প্রকল্প প্রক্রিয়াধীন। কিন্তু দেওয়ান শাহ নেওয়াজ গাজী মিলাদ এমপি নির্বাচিত হওয়ার তিন বছরেও বাহুবলে দৃশ্যমান কোন উন্নয়ন হয়নি। অথচ এমপির কতিপয় লোক উপজেলা পরিষদের উন্নয়ন কার্যক্রম বাস্তবায়নে অযথা বিশৃঙ্খলা তৈরি করছে ‘।

উল্লেখ্য যে, ২০১৯ সালের ১০ মার্চ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী সৈয়দ খলিলুর রহমান ঘোড়া প্রতীকে ২৩,৪৮৩ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন এবং তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী ও বর্তমান উপজেলা আ.লীগের উপজেলা সম্পাদক মোঃ আব্দুল হাই নৌকা প্রতীকে পেয়েছিলেন ১৭,৬০৬ ভোট।

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ