Md shohag Hossen - (Patuakhali)
প্রকাশ ১৬/০১/২০২২ ০৭:৪৩এ এম

Embankment: মির্জাগঞ্জে ঠিকাদারের বিরুদ্ধে বেড়িবাঁধ কাটার অভিযোগ

Embankment: মির্জাগঞ্জে ঠিকাদারের বিরুদ্ধে বেড়িবাঁধ কাটার অভিযোগ
ad image
পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে পায়রা নদী বেষ্টিত সুন্দ্রা কালিকাপুর এলাকার বেড়িবাঁধ কাটার অভিযোগ পাওয়া গেছে কালাম নামে এক ঠিকাদারের বিরুদ্ধে।

বেড়িবাঁধ প্রায় ১০ ফুট রাস্তা কেটে বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। আর বিচ্ছিন্ন অংশের মধ্য দিয়ে নেওয়া হচ্ছে সুন্দ্রা কালিকাপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নির্মানাধীন ভবনের ইট বালু রডসহ নির্মাণের যাবতীয় সরঞ্জাম। এতে বাধাগ্রস্ত হচ্ছে পথচারী ও যানবাহন।

জানা গেছে, বিদ্যালয়ের কাজটি পান পটুয়াখালীর ওই ঠিকাদার।নির্মান সামগ্রী সহজে সরবরাহর জন্য এই বেড়িবাঁধ কেটে রাস্তা করেছে ঠিকাদারের লোকজন। অভিযুক্তরা প্রভাবশালী হওয়ার কারণে কেউ এতে বাঁধা দিচ্ছেনা বলে জানান এলাকাবাসীরা।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, প্রতি বর্ষা মৌসুমে বেড়িবাঁধ ভেঙে লোকালয়ে পানি প্রবেশ করার কারণে দুর্ভোগে পড়ে এলাকাবাসী। বেড়িবাঁধটি পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃক উঁচু করে সংস্কার করার ফলে স্বস্তি পাই। কিন্তু এখন এই বেড়িবাঁধ কেটে ফেলায় আবারও শঙ্কিত আমরা।

সহকারী ঠিকাদার মোঃ লোকমান বলেন, ওই এলাকার চেয়ারম্যান নাসির ভাইর সাথে আলাপ করে বেড়িবাঁধ কাটা হয়েছে। ঠিকাদার মোঃ কালাম হোসেন বলেন, মালামাল সরবরাহের সুবিধার্থে বেড়িবাঁধ কাটা হয়েছে। আগামী ফেব্রুয়ারি মাসের ১৫ তারিখের মধ্যে ঠিক করে দেওয়া হবে। মির্জাগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান এ্যাডঃ মোঃ আবুল বাশার নাসির বলেন, সরকারি বেড়িবাঁধ কাটার অনুমতি দেওয়ার আমি কে? আমি তাদের কাটাতে বলিনি। মির্জাগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ আসিকুর রহমান বলেন, বিষয়টি আমি দেখতেছি।

পানি উন্নয়ন বোর্ড পটুয়াখালীর তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মজিবুর রহমান বলেন, বেড়িবাঁধ কাটা কোনভাবেই সমর্থনযোগ্য নয়। আমাদের তদন্ত টিম সরেজমিন তদন্তে যাবে। এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ