Md. Sukh Badsha - (Kurigram)
প্রকাশ ১৩/০১/২০২২ ১০:১৭এ এম

রৌমারীতে স্কুল শিক্ষাক্ষার্থীর মুখে বিষ ঢেলে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ!!

রৌমারীতে স্কুল শিক্ষাক্ষার্থীর মুখে বিষ ঢেলে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ!!
ad image
প্রেমিকার মুখে বিষ ঢেলে দিয়ে হত্যার চেষ্টায় প্রেমিক মেহেদী নামের এক সেনা সদস্যের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ১৮ ডিসেম্বর (শনিবার) সকাল ১০টার দিকে কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার দাঁতভাঙ্গা ইউনিয়নের উপজেলার দাঁতভাঙ্গা দ্বি-মুখী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়েু ঘটনাটি ঘটে। সে ওই বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থী। এঘটনায় ওই শিক্ষার্থীর বাবা বাদী হয়ে মঙ্গলবার রৌমারী থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার দাঁতভাঙ্গা দ্বি-মুখী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক কামাল হোসেন বিএসসি দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের প্রাইভেট পড়ান। ঘটনার দিন ধর্মপুর গ্রামের আজবাহার আলীর মেয়ে দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ওই শিক্ষকের কাছে প্রাইভেট পড়তে আসে। পরে শিক্ষার্থীর প্রেমিক দাঁতভাঙ্গা গ্রামের সাইজুদ্দিনের ছেলে সেনাসদস্য মেহেদী হাসানকে প্রেমের সম্পর্ক ধরে বিবাহের চাপ সৃষ্টি করে। এতে ওই সেনা সদস্য মেহেদী হাসান তাকে বিবাহ করতে অস্বীকৃতি জানায়। এনিয়ে প্রেমিক ও প্রেমিকার মধ্যে কথাকাটাকাটির এক পর্যায় মেহেদীর হাতে থাকা বিষ জোরপূর্বক প্রেমিকার মূখে ঢেলে দেয়। এতে প্রেমিকা অসুস্থ হলে বান্ধবিরা তাকে উদ্ধার করে রৌমারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। মেহেদী হাসান এরই মধ্যে সেনাবাহিনীর চাকুরেিত যোগদান করার কথা।

স্কুল শিক্ষার্থী অভিযোগ করে বলেন, মেহেদী হাসানের সাথে আমার দীর্ঘদিন থেকে প্রেমের সম্পর্ক চলছে এবং সে আমাকে বিয়ের প্রতিশ্রæতি দেয়। মেহেদীর সেনাবাহিনীতে চাকুরি হওয়ায় সে আমাকে অস্বীকার করছে। আমি এর সঠিক বিচার চাই।

অভিযুক্ত মেহেদীর বড় ভাই দাঁতভাঙ্গা দ্বী-মুখী বালিকা উচ্চ ব্যিালয়ের অফিসহকারি মমিনূল ইসলাম জানান, ঘটনাটি লোক মারফত শুনেছি এবং সমাধানের চেষ্টা চলছে।

দাঁতভাঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান এসএম রেজাউল করিম বলেন, মেয়ে পক্ষ আমার কাছে সমাধানের জন্য এসেছিল। আমি ছেলে পক্ষকে সমাধানের লক্ষে কথা বলেছিলাম কিন্ত তারা কোন পাত্তা দেয়নি।

রৌমারী থানার অফিসার ইনচার্জ মোন্তাছের বিল্লাহ বলেন, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ