Md. Abu Raihan
প্রকাশ ৩০/১২/২০২১ ০৬:৫৭এ এম

Joypurhat: মিথ্যা তথ্য ছড়িয়ে সংবাদ প্রকাশ ও নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতার তিব্র প্রতিবাদ

Joypurhat: মিথ্যা তথ্য ছড়িয়ে সংবাদ প্রকাশ ও নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতার তিব্র প্রতিবাদ
ad image
নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতার শিকার ও মিথ্যা ভিত্তিহীন তথ্য ছড়িয়ে উদ্দেশ্য প্রনোদিত সংবাদ সম্মেলনের তিব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছেন জয়পুরহাট জেলার বম্বু ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উক্ত ওয়ার্ডে গত ২৬ শে ডিসেম্বর ৪র্থ ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ সাধারণ নির্বাচনে সাধারণ সদস্য পদে নির্বাচনে অংশ গ্রহণকারী প্রতিদ্বন্দী প্রার্থী আব্দুল জব্বার ফরহাদ।

আব্দুল জব্বার ফরহাদ বলেন, ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় জয়পুরহাট জেলার বদ্ধভূমিগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বড়ো দুটি বদ্ধভূমিতে অসংখ্য নিরীহ বাঙ্গালী জনতা ও মুক্তি যোদ্ধাদেরকে হত্যা করা হয়েছিল। একটি জয়পুরহাট সদর উপজেলাধীন পাগলা দেওয়ান বদ্ধভূমি ও অপরটি কড়ই কাদিরপুর বদ্ধভূমি। তিনি জয়পুরহাট সদর উপজেলাধীন বম্বু ইউনিয়নের ১ং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করে আসাকালীন সময়ে কড়ই কাদিরপুরে উক্ত বদ্ধভূমিতে স্মৃতি স্তম্ভ ও একটি স্কুল গড়ে উঠেছে। এই কাজ গুলো করতে গিয়ে তিনি দির্ঘ দিন ধরে বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়ন মূলক কাজে নিজেকে সম্পৃক্ত রেখে মুক্তি যুদ্ধের চেতনাকে দ্বার করানোর চেষ্টা করেছেন।

এরই ধারাবাহিকতায় তিনি ২৬ শে ডিসেম্বর ইউপি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেন। কিন্তু গভীর উদ্বেগের সাথে তিনি খেয়াল করেছেন, মুক্তি যুদ্ধের চেতনার লোকদেরকে ভোট কেন্দ্রে যাওয়ার সময় তার প্রতিদ্বন্দী প্রার্থী মনোয়ার হোসেনের পক্ষ থেকে বিভিন্ন ভাবে ভয়-ভিতি প্রদর্শন ও হুমকি ধামকি করা হয়েছে। পরবর্তীতে ভোটের যে ফলাফল এসেছে তাতে তাকে ৯৩ ভোটে পরাজিত দেখানো হয়েছে।

নির্বাচন পরবর্তী সময়ে গত ২৭ ডিসেম্বর রাত আনুমানিক ৮ টার দিকে উক্ত ওয়ার্ডের কড়ই মাদ্রাসা বাজারে তিনি ও তার কর্মী সমর্থকরা চা পান করে কুশল বিনিময় শেষে বাড়ি ফিরতে রওনা হলে উক্ত নির্বাচনে কারচুপি করে বিজয়ী হওয়া তার প্রতিদ্বন্দী প্রার্থী মনোয়ার হোসেন ও তার ভাড়াটে লোকজন পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে তার উপর অতর্কিত হামলা করে এবং একইসাথে তার কর্মী সমর্থকদেরও মারপিট করে।

পরে স্থানীয়রা আহতাবস্থায় তাকে উদ্ধার করে বাড়িতে পৌঁছে দেয় এবং পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এ ঘটনার কিছু পরই আবারও প্রতিপক্ষের ভাড়াটে সন্ত্রাসীরা অস্ত্র সস্ত্র নিয়ে তার বাড়ি ঘেরাও করে হামলা চালাতে গেলে, ঘটনাস্থলে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সরে যায়। এসবে তিনি ব্যপক ক্ষতির শিকার হয়েছেন এবং বর্তমানে নিজের জীবন নিয়ে চরম নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছেন। প্রতিপক্ষ তাকে হত্যার গভীর স্বরযন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে এবং মুক্তি যুদ্ধের চেতনার কাউকে এলাকায় বাস করতে দিবেনা বলে হুমকি দিচ্ছে।

তিনি এর যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের পদক্ষেপ গ্রহনের প্রস্তুতি নিতেই আসল ঘটনাকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে তার প্রতিপক্ষ মনোয়ার হোসেন গত ২৯ ডিসেম্বর উল্টো তার বিরুদ্ধে মিথ্যা ভিত্তিহীন ও মনগড়া বক্তব্য উল্লেখ করে নাটকীয় ভাবে তার মাথায় প্রকৃত পক্ষে কোন প্রকার জখম না থাকা স্বত্তেও ব্যান্ডিস পেচিয়ে সম্পূর্ণ উদ্দেশ্য প্রনোদিতভাবে একটি সংবাদ সম্মেলন করেছে। যাহা কিছু গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে সেটি তার দৃষ্টি গোচর হলে তিনি এই প্রকাশিত মিথ্যা সংবাদের তিব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জ্ঞাপন করেন।

পাশাপাশি তিনি মামলার প্রস্তুতি নিয়েছেন বলে জানান এবং ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে প্রকৃত দোষিকে আইনের আওতায় এনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ