কাওসার জামিল
প্রকাশ ০৬/১২/২০২১ ০৮:৩১এ এম

প্রতিমন্ত্রী মুরাদের অডিও ক্লিপ ফাঁস প্রসঙ্গ

প্রতিমন্ত্রী মুরাদের অডিও ক্লিপ ফাঁস প্রসঙ্গ
ad image
দু'দিন যাবত মনে হচ্ছিল,সে কোন একটা খাদে পড়ছে। সত্যি তাই ঘটল।
ইদানিং একটা কথা সবাইকে ঘনঘন বলতে শুনি, আল্লাহ ছাড় দেন, ছেড়ে দেন না।
ইসলাম রাষ্ট্রধর্ম থাকতে পারবে না, ধৃষ্টতামূলক কথাটি সেই তো বলেছিল!
আলেম-ওলামাদেরকে নিয়ে যাচ্ছেতাই বাজে মন্তব্য করে আসছিল কিছুদিন যাবত। আল্লাহর বান্দাদের কে অশোভন ভাষায় যা তা বলে বেড়াচ্ছিল। মাইকের সামনে এসে নোংরা মন্তব্য অপবাদ গালিগালাজ ব্যক্তিবিশেষ কে নিয়ে কটুক্তি সহ্যের সীমা অতিক্রম করেছিল।সাহাবায়ে কেরামের পদধুলিতে ধন্য বাংলাদেশের ওলি- বুজুর্গদের কে নিয়ে তার মন্তব্য আরশের মালিক সহ্য করতে পারেননি। তার নোংরামির অডিও ক্লিপ ভাইরাল হয়ে এখন সবার হাতে হাতে।
সে কত নীচু, মসজিদের মিম্বরে বসে হাত নেড়ে আংগুল নেড়ে হুজুরদেরকে কথা বলে । দুদিন পর আবার গানের আসরে মঞ্চে উঠে উদ্দাম নৃত্য দেয়! তার কর্মকান্ড দেখে কেউই ধরেই নিতে পারবে না, সে একজন মুসলমান বা বৈধ সন্তান।
আশ্চর্যের বিষয় ছিল। সে কথাগুলো বলার পর বলতো, আমার মা শেখ হাসিনার অনুমতি নিয়েই সব বলছি! প্রশ্ন জাগে, প্রধানমন্ত্রী কি এগুলো শোনেননি?তার উপদেষ্টারা কি এগুলো দেখেন নি? তার একান্ত সচিবরা তাকে সতর্ক করেন নি? তারা মিডিয়ায় কেন পাল্টা বিবৃতি দিয়ে তাকে থামাননি? তাহলে এবার দেখে নিন।
মাঝে মাঝে মনে হতো, আওয়ামী লীগের মাঝে কত ভালো লোক আছে, নামাজী লোক আছে,তারা কি হাইকমান্ডে জানিয়ে তাকে থামাতে পারে না? কারণ তাকে দিয়ে তো দলের বদনাম হচ্ছে।
না,কারো সাউন্ড পেলাম না। খুবই ব্যথিত হলাম। আর দেখলাম, আওয়ামী লীগের বিরোধিতা যারা করে, তাদের দলিল কত স্ট্রং হচ্ছে।
এবার শেষটা দেখুন, সে নিজেও অপদস্ত হলো, লাঞ্ছিত হলো। দলেরও বদনাম করে ছাড়লো।
তসলিমা নাসরিন থেকে শুরু করে কোন কুলাঙ্গার কে বাংলার মাটি সহ্য করতে পারেনি, পারবেওনা, ইনশাআল্লাহ।

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ