MAHBUBUR RAHMAN OVI
প্রকাশ ৩০/১১/২০২১ ১২:৩৯পি এম

Rape case: বরগুনায় মাদ্রাসা শিক্ষকের যাবজ্জীবন কারাদন্ড

Rape case: বরগুনায় মাদ্রাসা শিক্ষকের যাবজ্জীবন কারাদন্ড
ad image
ছাত্রীকে ধর্ষণের দায়ে বরগুনায় সাইফুল ইসলাম (৩০) নামের এক মাদরাসা শিক্ষককে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। মামলার অপর এক আসামী রাশেদা বেগম (২৫) নামের এক নারীকে এ মামলা থেকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) দুপুরে বরগুনা জেলা ও দায়রা জজ আদালতের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. হাফিজুর রহমান এ আদেশ দেন। একই সঙ্গে আসামী সাইফুল ইসলামকে ২০ হাজার টাকা অর্থদন্ড দেওয়া হয়েছে। অনাদায় আরোও ১ বছরের কারাদন্ডে আদেশ রয়েছে।

সাইফুল ইসলাম বরগুনা সদর উপজেলার ফুলঝুরি ইউনিয়নের সাহেবের হাওলা রফেজিয়া দাখিল মাদ্রাসার শরীর চর্চার শিক্ষক ছিলেন এবং একই ইউনিয়নের সাহেবের হাওলা গ্রামের মাওলানা মো. ইব্রাহীম খলিলের ছেলে।

বাদীপক্ষের আইনজীবী এপিপি আশ্রাফুল আলম শিল্পী জানান, ২০১৯ সালের ২০ জানুয়ারি মাদ্রাসার শরীর চর্চা শিক্ষক আসামী সাইফুল ইসলাম ভুক্তভোগী ৮ম শ্রেণীর শিক্ষার্থীকে মাদরাসার পাশের নিজ বাড়ির দোতলায় নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করেন। এতে ভুক্তভোগী ওই শিক্ষার্থীর যৌনাঙ্গে ৮টি সোলাই লাগে, সে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে ঘটনার দিন বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। তার শারীরিক অবস্থার অবনতির হলে সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

নির্যাতিতা ভুক্তভোগী ওই শিক্ষার্থীর বাবা ওই দিন বিকেলে সাইফুল ইসলামকে প্রধান আসামি করে তিন জনের বিরুদ্ধে বরগুনা সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পরে একই বছরের ২০ ফেব্রুয়ারী পলাতক সাইফুল ইসলামকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।

তিনি আরও জানান, এ মামমলায় ১৬ জন স্বাক্ষীর মধ্যে ১২ জনের স্বাক্ষ্য গ্রহণ করে আদালত। এ রায়ে আমরা রাষ্ট পক্ষ সন্তোষ্ট। এ রায়ের ফলে সমাজে এ ধরণে ঘৃণ্য অপরাধ ভবিষ্যতে আর ঘটবে না।

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ

*PLEASE INSERT THIS PART OF THE TAG TO THE BODY SECTION OF THE PAGE WHERE YOU'D LIKE TO SEE ADS*