সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১
Ali Sohel - (Kishoreganj)
প্রকাশ ১৬/১১/২০২১ ০৫:২২পি এম

বাড়িতে পিতার লাশ রেখেই পরীক্ষা দিলেন উদয়

বাড়িতে পিতার লাশ রেখেই পরীক্ষা দিলেন উদয়
পিতার মরদেহ বাড়িতে রেখে চোখে টলমল অশ্রু নিয়ে এস.এস.সি পরীক্ষায় বসেছেন উদয় শাহ নামের এক পরীক্ষার্থী। সকালে হঠাৎ স্টোক করে মৃত্যু হয় পিতার। পিতার মৃত্যুর শোকে নির্বাক হয়েই পরীক্ষার কেন্দ্রে যায় ওই পরীক্ষার্থী।

মঙ্গলবার (১৬ নভেম্বর) কটিয়াদী উপজেলার মুমুরদিয়া ইউনিয়নের কুড়িখাই গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে।

জানা গেছে, মঙ্গলবার (১৬ নভেম্বর) ভোরে উদয়ের পিতা স্টোক করে মৃত্যুবরণ করেন। পিতার মরদেহ বাড়িতে রেখে সকাল ৯টায় পরীক্ষায় বসে সে। উদয় শাহ তাহেরা নূর হাই স্কুল এন্ড কলেজের এস.এস.সি পরীক্ষার্থী। তার বাবা শাহ আজহারুল হক আনোয়ার (৪৯) উপজেলার মুমুরদিয়া ইউনিয়নের কুড়িখাই গ্রামের মৃত শাহ আব্দুল বাতেনের ছেলে।

নিহতের স্বজনেরা জানায়, আজ উদয়ের এস.এস.সির তৃতীয় দিনের রসায়ন পরীক্ষা চলছিলো। এরমধ্যে হঠাৎ তার বাবা শাহ আজহারুল হক আনোয়ার স্টোক করে ভোরে নিজ বাড়িতে মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুর পর বাবা হারা উদয় ভেঙে পড়লেও সহপাঠী আর স্বজনদের উৎসাহে কটিয়াদী পাইলট গার্লস উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে পরীক্ষা দিতে যায় সে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উদয়ের বাবার মৃত্যুর খবরে পরীক্ষা কেন্দ্রে এক শোকের ছায়া নেমে আসে। এক হাতে চোখ মুছে ও অন্য হাতে খাতায় লিখতে দেখা গেছে উদয়কে। পরে তড়িগড়ি করে এস.এস.সির তৃতীয় দিনের পরীক্ষা শেষ করে বাড়িতে যায় উদয় শাহ। বর্তমানে নিহতের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম।

তাহেরা নূর হাই স্কুল এন্ড কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ইন্দ্রজিৎ কুমার সাহা জানান, ‘পরীক্ষার্থী উদয়ের পিতার মৃত্যুর বিষয়টি আমরা অবগত আছি। সে সবার সঙ্গে তৃতীয় দিনের রসায়ন পরীক্ষা শেষ করেছে। আমরাও তাকে সান্ত্বনা ও উৎসাহ দিয়েছি পরীক্ষা দিতে।’

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ