Harunur Rashid( - (Rajbari))
প্রকাশ ১৪/১১/২০২১ ১০:৩৮এ এম
রাজবাড়ি সদর উপজেলার বাণিবহ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সভাপতি, সম্ভব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ আব্দুল লতিফ মিয়া (৫৭) কে গুলি করে হত্যার ঘটনার এক দিন পর রবিবার দুপুরে মামলা দায়ের করা হয়েছে।আব্দুল লতিফ মিয়ার স্ত্রী শেফালী আক্তার বাদী হয়ে ৮ জনকে চিহ্নিত করে এবং অজ্ঞাত পরিচয়ের আরো ৪/৫জনকে আসামী করে এই মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ রাজবাড়ী সদর উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ওই মামলায় সর্বশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ৫ জন আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো, বানীবহ ইউনিয়নের বাণিবহ গ্রামের বাসিন্দা ও সাবেক চেয়ারম্যান মৃত হাবিবুর রহমান হবি’র ছেলে মোর্শেদআলম (৩৫), একই গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে সীমান্ত (২৫), ঘিমোড়া গ্রামের হাসেম মোল্লার ছেলে মনির মোল্লা (৩৫), বার্থা গ্রামের আহন আলী মুন্সীর ছেলে ইসমাইল মুন্সি (৫৮) এবং বৃচাত্রা গ্রামের জুবায়েরের ছেলে জাকারিয়া (২৬)। মামলার অপর ৩ আসামিকে গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানিয়েছেন, রাজবাড়ী থানার ওসি মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন।

এ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও রাজবাড়ী থানার এসআই হিরণ কুমার বিশ্বাস জানিয়েছেন, ঘটনাস্থল থেকে একটি ইন্ডিয়ান পিস্তলের গুলির খোসা উদ্ধার করা হয়েছে।

মামলার বাদী আব্দুল লতিফের স্ত্রী শেফালী আক্তার জানিয়েছেন, ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডে নির্বাচনী উঠান বৈঠক শেষ গত বৃহস্পতিবার রাত ১২টার দিকে রাজবাড়ী সদর উপজেলার বানিবহ বাজার থেকে মোটরসাইকেলে বাড়ীর উদ্দেশ্যে রওনা হন লতিফ। বাড়ীর কাছাকাছি পৌছতেই দূর্বৃত্তরা পূর্বপরিকল্পিত ভাবে তার গতিরোধ করে এবং বুকসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ৪টি গুলি বর্ষণ করে তার স্বামীকে হত্যা করে। তিনি বলেন, এটা একটি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড। কারণ হত্যার আগ মুহুর্তে বিদ্যুতের লোড শেডিং করা হয় এবং গুলি বর্ষণের কিছু সময় পর বিদ্যুৎ চলে

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ