বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১
Verified আই নিউজ বিডি ডেস্ক
প্রকাশ ২০/১০/২০২১ ০১:১৯পি এম

Salman F. Rahman: পরিদর্শন কর্মকর্তাদের দায়িত্ব তথ্য সংগ্রহ , কাউকে হয়রানি নয়- সালমান এফ রহমান

Salman F. Rahman: পরিদর্শন কর্মকর্তাদের  দায়িত্ব  তথ্য সংগ্রহ , কাউকে হয়রানি নয়- সালমান এফ রহমান
প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান বলেছেন, শিল্পকারখানায় কিছু সমস্যা আছে। সমস্যার ধরন জানতেই এই পরিদর্শন। এটা কোনো প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে অভিযান নয়। পরিদর্শন কর্মকর্তাদের প্রধান দায়িত্ব কেবল তথ্য সংগ্রহ করা, কাউকে হয়রানি করা নয়।

কলকারখানা, শিল্প ও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানে দুর্ঘটনা রোধ ও নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে গঠিত সমন্বিত পরিদর্শন ও পর্যবেক্ষণ দলের প্রশিক্ষণ কর্মসূচির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান।

যৌথভাবে এই প্রশিক্ষণের আয়োজন করে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) এবং কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর (ডিআইএফই)।গতকাল মঙ্গলবার সকালে বিডার মিলনায়তনে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন বিডার নির্বাহী চেয়ারম্যান মো. সিরাজুল ইসলাম, সুরক্ষা ও সেবা বিভাগের সচিব মো. মোকাব্বির হোসেন, এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি জসিম উদ্দিন। সভাপতিত্ব করেন শ্রমসচিব মো. এহছানে এলাহী।

সালমান এফ রহমান বলেন, কোথাও দুর্ঘটনা ঘটলেই ডিআইএফইকে দায়ী করা হয়। অথচ কলকারখানার অনুমতি দেয় ১৫টি সরকারি সংস্থা। এসব সংস্থার মধ্যে কার কী দায়িত্ব, তা-ও সুস্পষ্ট করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

বিডার নির্বাহী চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম বলেন, মাঠপর্যায়ের পরিদর্শনে ব্যবসায়ীদের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি করা যাবে না। কাউকে শাস্তি দেওয়া পরিদর্শকদের দায়িত্ব নয়, বরং নিয়মনীতি অনুযায়ী শিল্পকারখানাগুলোকে কমপ্লায়েন্ট হতে সহযোগিতা করাই বড় কাজ।

বিডার নির্বাহী চেয়ারম্যান বলেন, বিভিন্ন খাতের প্রায় ৪৬ হাজার কারখানা ও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান পরিদর্শনের জন্য চিহ্নিত করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ৫ হাজার শিল্পকারখানা পরিদর্শনের লক্ষ্যে ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ ও গাজীপুর জেলার জন্য মোট ২৭টি পরিদর্শক দল গঠন করা হয়েছে।

তাদের কাজের প্রকৃতি, কার্যপদ্ধতি ও সামগ্রিকভাবে করণীয় সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারণা দিতে এই প্রশিক্ষণ কর্মসূচি আয়োজন করা হয়েছে। এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি জসিম উদ্দিন বলেন, কোনো কারখানা ভবনের নকশা ও কার্যক্রম চালুর অনুমতি দেয় সরকারের কয়েকটি সংস্থা।

এই প্রক্রিয়ায় দুর্বলতা থাকলে কেবল কারখানার মালিককেই দায়ী করা হয়। শ্রমসচিব বলেন, ‘আমরা সবাই কাজ করছি। তবে সমন্বয়হীনতার কারণে আমরা কাঙ্ক্ষিত সাফল্য পাচ্ছি না।’

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ

*PLEASE INSERT THIS PART OF THE TAG TO THE BODY SECTION OF THE PAGE WHERE YOU'D LIKE TO SEE ADS*